রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ডেমরায় যুবলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত শুভর কান্না থামাতে পেরে খুশি টিআই বিপ্লব ভৌমিক ডেমরার ৬৬ নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের প্রথমিক সদস্য সংগ্রহ ও ফরম বিতরণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে হেনকাপ নিয়ে পালিয়েছে মাদক ব্যবসায়ী ডেমরায় ৬৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত    শেখ রেহানার জন্মদিনে দক্ষিণ যুবলীগের দোয়া ও খাবার বিতরণ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ও জমি দখলের প্রতিবাদে বাউবির ছাত্র ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন  যাত্রাবাড়ীর মান্নান হাই স্কুল এন্ড কলেজে উৎসব মুখর পরিবেশে শিক্ষার্থীদের বরণ ত্রিশালে বিএনপি’র নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা ডেমরায় বাংলাদেশ যাত্রা শিল্প উন্নয়ন পরিষদের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

প্রয়োজনে আবার রিমান্ডে নেওয়া হবে, জানালেন এসপি

মোঃ মোয়াশেল ভূঁইয়া

নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেছেন, ‘রূপগঞ্জে ফুড কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে আমরা ৫১ জন শ্রমিককে হারিয়েছি। এটি একটি মর্মান্তিক ঘটনা। এ ঘটনার সাথে যারা প্রাথমিকভাবে সম্পৃক্ত আছে বলে মনে করেছি তাদের বিরুদ্ধে আমরা একটি মামলা দেই এবং আমরা ৮ জনকে গ্রেফতার করি। গ্রেফতারের পরে তাদের বিরুদ্ধে আদালতে আমরা রিমান্ড প্রার্থনা করি এবং আদালত ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ৪ দিন জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদেরকে আমরা আদালতে প্রেরণ করি। আদালত ৮ জনের মধ্যে ২ জনের জামিন মঞ্জুর করেন।’

বুধবার (১৪ জুলাই) বিকেলে নিজ কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সুপার বলেন, ‘তাদের বিল্ডিং কোড মানা হয়েছিলো কিনা, বিল্ডিংয়ে কি ত্রুটি ছিল, কর্মপরিবেশে কোন ধরনের ত্রুটি ছিল, এ রকম যতগুলো অভিযোগ উঠেছিল, সে বিষয়ে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তারা আমাদের বেশিরভাগ প্রশ্নের কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি। তারা বলেছেন যে, এটি একটি দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা।’

ঘটনার পর গঠিত ফায়ার সার্ভিসের তদন্ত দল কারখানা ভবনের অপ্রতুল অগ্নিনির্বাপন ব্যবস্থার কথা জানিয়েছে। তবে রিমান্ডে এই বিষয়ে নিজেদের কোনো গাফিলতির কথা স্বীকার করেননি বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম। জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা কী ধরনের তথ্য দিয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অগ্নিকান্ডের কারণ সম্পর্কে কিছু বলেননি তারা। তাদের গাফিলতি ছিল কিনা সে বিষয়টিও স্বীকার করেনি। আরও কিছু তথ্য জানতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছি, সেসব নিয়েও কোনো কথা বলেননি তারা। আবার অনেক প্রশ্নেরই সদুত্তর দিতে পারেননি। প্রশ্নের উত্তরে কেবল নীরবতা পালন করেছেন। তবে মর্মান্তিক এই ঘটনার জন্য তারা দুঃখ প্রকাশ করেছেন মালিকপক্ষ ও কর্মকর্তারা।’

এক প্রশ্নের জবাবে এসপি বলেন, ‘আমরা যা যা পেয়েছি এবং আগামীতে পাবো, সেসব নিয়ে যাচাই-বাছাই করে আদালতের কাছে পুলিশ প্রতিবেদন দায়ের করবো। প্রয়োজনে আবার রিমান্ডে নেবো।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 dailydeshamar
Design & Developed BY Freelancer Zone