রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
ডেমরায় যুবলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত শুভর কান্না থামাতে পেরে খুশি টিআই বিপ্লব ভৌমিক ডেমরার ৬৬ নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের প্রথমিক সদস্য সংগ্রহ ও ফরম বিতরণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত সিদ্ধিরগঞ্জে হেনকাপ নিয়ে পালিয়েছে মাদক ব্যবসায়ী ডেমরায় ৬৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত    শেখ রেহানার জন্মদিনে দক্ষিণ যুবলীগের দোয়া ও খাবার বিতরণ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা ও জমি দখলের প্রতিবাদে বাউবির ছাত্র ঐক্য পরিষদের মানববন্ধন  যাত্রাবাড়ীর মান্নান হাই স্কুল এন্ড কলেজে উৎসব মুখর পরিবেশে শিক্ষার্থীদের বরণ ত্রিশালে বিএনপি’র নবগঠিত কমিটির পরিচিতি সভা ডেমরায় বাংলাদেশ যাত্রা শিল্প উন্নয়ন পরিষদের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত

নিদারুণ অবহেলায় চরভাঙ্গার দুটি রাস্তা, ৩০ বছরেও লাগেনি উন্নয়নের ছোঁয়া

 

হাইমচর প্রতিনিধি

হাইমচরের চরভাঙ্গা গ্রামের প্রধান সড়ক থেকে ৮নং ওয়ার্ড ভোটকেন্দ্র ও ভোটকেন্দ্র থেকে হাইমচর ডিগ্রি কলেজ পর্যন্ত রাস্ত দুটি ৩০ বছরেও উন্নয়নের মুখ দেখেনি। সরকার, এমপি চেয়ারম্যান ও মেম্বার গনের পরিবর্তন হলেও পরিবর্তন হয়নি এখানে বসবাস করা মানুষের ভাগ্য। রাস্তাগুলোর সংস্কার না হওয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে নানা রকম দূর্ঘটনা।

গত বছর মেঘনায় অনাকাঙ্ক্ষিত জোয়ার ও মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির কারণে রাস্তা দুটিতে সৃষ্টি হয় বড় বড় গর্তের। ফায়ার ট্রলি সহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচলের কারণে রাস্তাগুলো হয়ে পড়েছে চলাচলের অনুপযোগী। ফলে অসুস্থ রোগী হাসপাতালে আনা-নেওয়া ও দিবারাত্রি মানুষের চলাচলে চমর ভোগান্তির স্বীকার হতে হচ্ছে।

স্থানীয়ভাবে কেউ কেউ ২/৩ মেয়াদে চেয়ারম্যান কিংবা ইউপি সদস্য নির্বাচিত হলেও রাস্তাটি সংস্কার করা সম্ভব হয়নি কারো পক্ষে। টানা ১৯ বছর ইউপি সদস্য থেকেও ভাগ্য বদলাতে পারেনি রাস্তাগুলোর। চলমান সরকারের শাসনামলে দেশের সর্বত্র নানামুখী উন্নয়ন সহ রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট সংস্কার হচ্ছে। ‘গ্রাম হবে শহর’ এর আওতায় হাইমচরে অন্যান্য রাস্তাগুলো আরসিসি ঢালাই কিংবা কার্পেটিং হলেও কেউ রাখেনি এই রাস্তা দুটির খোঁজ।

স্থানীয় বাসিন্দা মোক্তার আহমদ মিজি জানান, আমার বাড়িটি ভোট কেন্দ্রের কাছে হওয়ায় দুটি রাস্তাই ব্যবহার করতে হয় আমাকে। দীর্ঘদিন এই রাস্তাগুলোতে কোন সংস্কার না হওয়ায় চলাচলে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে আমাদের। ইউপি সদস্য মিজান শেখ নিজ উদ্যোগে মাটি, রাবিশ ও বালি ফেলে কিছুটা মেরামত করলেও তা টেকসই হয়না। স্থায়ীভাবে রাস্তাগুলো সংস্কার হলে আমাদের কষ্ট লাঘব হবে।

বিশিষ্ট সমাজ সেবক অলি আহমদ চৌকিদার বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ শুনে আসছি রাস্তাটি সংস্কার করা হবে। কিন্তু আজও পর্যন্ত হচ্ছে না। মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর আন্তরিকতায় মেঘনা বাঁধ নির্মাণ করায় আমার বাড়িটি নদী সংলগ্ন হওয়া সত্বেও নিজের যায়গায় বসবাস করতে পারছি। তা-ই রাস্তাগুলো সংস্কারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূর হোসেন পাটওয়ারীর সুদৃষ্টি কামনা করছি।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরদার আবদুল জলিল মাস্টার বলেন, ৩নং আলগী দক্ষিণ ইউনিয়নের কাঁচা রাস্তাগুলোর তালিকা করে জমা দিয়েছি। পর্যায়ক্রমে রাস্তাগুলো কাপাকরন করা হবে। ‘গ্রাম হবে শহর’ এর আওতায় হাইমচরে রাস্তা সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে। খুব শীঘ্রই এই রাস্তাগুলোর সংস্কার কাজ শুরু হবে বলে আশা রাখছি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 dailydeshamar
Design & Developed BY Freelancer Zone